মুলত আমি জানতে চাই যে সব মানুষের বুদ্ধি একরকম হয় না কেন?

Administrator Member Since Oct 2016
Flag(0)
Jan 19, 2014 01:07 AM 1 Answers
Subscribe

মুলত আমি জানতে চাই যে সব মানুষের বুদ্ধি একরকম হয় না কেন? বুদ্ধি, মেধা, স্মৃতি কি সব এক? কেন আমার বুদ্ধি আইনস্টাইন এর মতো হয় না? কিসের পার্থক্য? এই পার্থক্য কি ঘোচানো সম্ভব? কিভাবে একটি বাচ্চাকে ছোট বেলা থেকে মানুষ করলে তাকে বুদ্ধিমান ও স্মৃতিশক্তি সম্পন্ন করে তোলা যাবে? এই বিষয়ে আমি পড়াশোনা করতে চাইকোন বই, সাইটের খোঁজ দেবেন দয়া করে? 

1 Subscribers
Submit Answer
Please login to submit answer.

1 Answers
Sort By:
Best Answer
0
AnswersBD Administrator May 29, 2014 01:34 AM
Flag(0)

আমি জিনগত কারণটি বলতে পারি। এমনিতেই আমরা পরস্পর পরস্পর থেকে আলাদা তাছাড়া একই বংশশরের বা মা বাবার সাথে বাহ্যিক বৈশিষ্টের মিল থাকলেও কিছু জিনগত পার্থক্য থেকেই যায়। এবার ব্যপারটা বুঝুন একটি- নতুন জিনগত বিন্যাস (DNA এর আভ্যন্তরীণ বিন্যাস) নতুন বৈশিষ্টের প্রকাশ ঘটায়। কারণ এক ধরণের সিক্যুয়েন্সের DNA এক ধরণের প্রোটিন তৈরির জন্য দায়ী যা নির্দিষ্ট চারিত্রিক বৈশিষ্টের প্রকাশ ঘটায় (বুদ্ধিদীপ্ততাও চারিত্রিক বৈশিষ্টেরই অংশ)। একারণেই ভিন্ন ভিন্ন মানুষের জিনগত বিন্যাস একেক ধরনের হয় বলেই তার বুদ্ধি বা মেধা অন্যের পুরোপুরি অনুরুপ হয় না।

Sign in to Reply
Replying as Submit

ফ্রিজের খাবার নিয়ে

Administrator Member Since Oct 2016
Flag(0)
Jan 18, 2014 07:46 PM 1 Answers
Subscribe

আমি সপ্তাহে একবার বাজার করি আর ফ্রিজে রেখে রেখে খাই। এর মধে মুলত থাকে মাছ, মাংস, ডিম, আলু, সব্জি আর ফল। এই ফ্রিজে রেখে খাওয়া কি শরীরের পক্ষে খারাপ? বিশেষ করে বাচ্চাদের জন্ন্য।
1 Subscribers
Submit Answer
Please login to submit answer.

1 Answers
Sort By:
Best Answer
0
AnswersBD Administrator Jan 18, 2014 09:26 PM
Flag(0)

না, এক সপ্তাহে সাধারনত কোন সমস্যা হয় না।

তবে যেকোনো খাদ্যই টাটকা খাওয়া উচিত। এতে যে পুষ্টিগুণ থাকে, তা ফ্রিজে সংরক্ষিত খাদ্যে পাওয়া যায় না। ব্যস্ত নগরজীবনে বেশির ভাগ মানুষেরই প্রতিদিন বাজার করার সময় হয় না। তাই ফ্রিজের কোনো বিকল্প নেই।ফ্রিজে খাবার সংরক্ষণে আমরা কিছু বিষয়ে খেয়াল রাখতে পারি-

১।কাঁচা মরিচের বোঁটা ফেলে দিয়ে পলিথিনে মুড়িয়ে ফ্রিজে রাখলে তাতে সহজে পচন ধরে না।
২। শাকসবজি সংরক্ষণঃ শাকসবজি সাধারণত এক সপ্তাহের বেশি ফ্রিজে রাখা উচিত নয়।
সবজি দু-তিন মিনিট ফুটন্ত পানিতে ভাপিয়ে নিতে হবে। পরে হিমশীতল পানিতে কিছুক্ষণ ডুবিয়ে, পানি ঝরিয়ে বায়ুশূন্য পলিথিন ব্যাগে মুড়িয়ে রাখলে অনেক দিন তা ভালো থাকে।
৩।এ ছাড়া যেসব শাকসবজির মূল আছে, তা কেটে ফেলতে হবে। তারপর পানি ঝরিয়ে পলিথিনে রাখতে হবে।
৪। ফল সংরক্ষণঃ ফল পলিথিনে মুড়ে রাখলে ভালো থাকে। তবে যেসব ফলে আঁটি থাকে, সেগুলোর আঁটি বের করে ডিপ ফ্রিজে রাখলে অনেক দিন ভালো থাকে।
৫।কাগজের প্যাকেটে মুড়িয়ে রাখলে কলা ভালো থাকে।
৬। মাংস সংরক্ষণঃ মাংস পরিষ্কার করে চর্বি ফেলে দিয়ে হালকাভাবে পলিথিনে মুড়িয়ে ডিপ ফ্রিজে রাখতে হবে।
৭। অনেক সময় ডিপ ফ্রিজে মাছ-মাংসের সঙ্গে বরফ, ফলের রস, সস ইত্যাদি রাখা হয়। সে ক্ষেত্রে এগুলো ঢাকনাযুক্ত বাক্সে রেখে ভালোভাবে মুখ বন্ধ করতে হবে।
৮।ফ্রিজে পরিষ্কার বোতলে পানি রাখা উচিত।

মনে রাখতে হবে
-রান্না করা খাদ্য প্লাস্টিকের বাক্সে না রেখে স্টেইনলেস স্টিল বা রুপার পাত্রে রাখলে তা ভালো থাকে।
–ফ্রিজে রাখা খাদ্য যেন সব সময়ই ঢাকা থাকে, যাতে এক খাবারের গন্ধ আরেক খাবারে না যায়।
–শাকসবজি ও ফল ফ্রিজের পেছনের দিকে রাখা উচিত নয়। কারণ, এগুলোর পানি জমে খাদ্য নরম হয়ে যায়।
–ফ্রিজে রাখার আগে খাদ্যবস্তুকে ভালোভাবে পরিষ্কার করে নেওয়া উচিত।
–সঠিকভাবে সংরক্ষণের জন্য খাদ্যবস্তু সতর্কতার সঙ্গে বাছাই করতে হবে। অযথা নাড়াচাড়া করাও ঠিক নয়।
–ফ্রিজে খাদ্য সংরক্ষণের ক্ষেত্রে এর সঠিক তাপমাত্রার প্রতি খেয়াল রাখতে হবে।
–ফ্রিজ নিয়মিত পরিষ্কার করতে হবে।

তথ্যসূত্রঃ দৈনিক প্রথম আলো।

Sign in to Reply
Replying as Submit