অর্কিড কোন ধরনের উদ্ভীদ?

Administrator Member Since Oct 2016
Flag(0)
Sep 21, 2012 07:11 AM 2 Answers
Subscribe

1 Subscribers
Submit Answer
Please login to submit answer.

2 Answers
Sort By:
Best Answer
0
AnswersBD Administrator Sep 24, 2012 04:49 PM
Flag(0)

কয়েক প্রকার অর্কিডের বৈশিষ্ট্য:

ডেন্ড্রোবিয়াম (Dendrobium): এর অধিনে রয়েছে শতশত জাতি। অনেক গুলো ফুলের মাতার মতো মনে হয় এবং নিচের দিকে ঝুলে থাকে, এগুলোতকে সাধারণত ঝুলন্ত ঝুড়ি কিংবা টবে দেখা যায়।

এরান্ডিনা (Arundina) : এটি ভূমিজ অর্কিড, নলাকৃতি বিশিষ্ট। সেপ্টেম্বরে মোহনীয় গোলাপী ফুল ফোটে।

ভ্যানিলা (Vanilla) : টবে শ্যাওলায় ভালোভাবে জন্মানো যায়। এর বাউনির প্রয়োজন হয়। এর অনেক জাতি সবুজাভ সাদা ফুল দেয়। রাতে ফুলের সুগন্ধ ছড়ায়।

সিলোগাইন (Coelogyne): বাংলাদেশ ও ভারতের পাহাড়ে এটি দেখাযায়। এর ক্রিস্টেটা ও ওডোরেটিসিম জাতি বিশেষভাবে সুগন্ধযুক্ত ফুলের জন্য বিখ্যাত।

এপিডেন্ড্রাম (Epidendrum) : এরা প্রায় তিনশত জাতি রয়েছে। ফুলের াাকার ও সৌন্দর্যের জন্য বিখ্যাত। জাতিগুলো হচ্ছে নেমোরেল, স্কিনেরি ও প্রিজমেটি কার্পাস।

সাইর্টোপেরা (Cyrtopera) : বড় আকারের সোনালী ফুল ফোটে মে মাসে।

Sign in to Reply
Replying as Submit
Best Answer
0
AnswersBD Administrator Sep 24, 2012 04:48 PM
Flag(0)

অর্কিড (Orchid): Orchidaceae পরিবারভুক্ত যে কোন ফুল। যার নান্দনিক সৌন্দর্য ও দীর্ঘ সময় সতেজ থাকার গুন সৃষ্টিকর্তার একে মহিমা ছাড়া আর কিছুই না। এ জন্যই জগতে অর্কিড এর তুলনা শুধু অর্কিড-ই।

এদের গণ ও প্রজাতির সংখ্যা যথাক্রমে প্রায় ৭০০ ও ২০,০০০ এবং শীতলতম অঞ্চল ছাড়া গোটা বিশ্বে বিস্তৃত, আদ্র-ক্রান্তীয় এলাকায়ই অধিক। অর্কিড বহু বর্ষজীবী ঔষধী, পরাশ্রয়ী, ভুমিজ, কখনও শিলা-উভ্দিদ, মৃতজীবী। পরাশ্রয়ী সদস্যরা প্রধানত ক্রান্তীয় ও উপক্রান্তীয় অঞ্চলের এবং ভুমিজ প্রজাতিগুলো নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চলের বাসিন্দা।
বাংলাদেশে প্রায় ২০০ প্রজাতির অর্কিডের বেশির ভাগই Dendrobium, Bulbophyllum, Elophia, Aeredis, Luisa, Vanda গণের অন্তর্ভুক্ত। সারা বছর কিছু কিছু অর্কিডে ফুল ফোটলেও জানুয়ারি-জুন হলো ফুল ফোটার সময় এবং সর্কাধিক মার্চ-এপ্রিল।

ব্যবসায়িক দিক থেকে লাভজনক হিসেবে বিবেচ্য প্রজাতিগুলোর মধ্যে রয়েছে Dendrobium formosum, D. fumbriatum, D. primulinum, D. crepidatum, Rhyncostylis retusa, Aeredis odoratum.

কিছু সংখ্যক ব্যবসায়ী বিদেশী অর্কিড সংগ্রহ ও বিপণনে আগ্রহ দেখাচ্ছে।বাংলাদেশে যেসব অর্কিডের চাষ হয় তার মধ্যে ভূমিজ অর্কিড খুব সহজেই চাষ করা যায়। ভূমিজ অর্কিডের গুচ্ছমূল মাটিতে জন্মে এবং মাটি থেকেই রস ও খাদ্য গ্রহন করে।এ ধরনের অর্কিড কৃত্তিম অবস্থায় জন্মাতে হলে স্বাভাবিক পরিবেশ সৃষ্টি করতে হয়। যেমন যথোপযুক্ত উষ্ণতা, আদ্রতা ও ছায়াযুক্ততা বজায় রাখা এবং সুষ্ঠ জল নিকাশের ব্যবস্থা রাখা।

Sign in to Reply
Replying as Submit